Storybd.com

একটি বাংলা গল্পের সাইট

আকুতি

কেউ খুজে পথের দিশা আমি খুঁজি মা,ও আকাশ বলে দাও, ঐ কুড়ে ঘরে হবে কি আমার একটু ঠাই ? বেশতো ছিলাম প্রাসাদ নামক অট্টালিকায় কি বা পেলাম ? দুঃখ বিনা সুখ মিলেনি কখনো,তাই তো কুড়ে ঘরকে করে নিলাম আপন ঘর । সে যে আমার নিকট অনেক বড়, বড় থেকে আর বড় যা অনুভব করি । আমি মর্জিনা ছোট বেলায় মাকে হারিয়েছি। ঘররে ঘর তুই কি শুধুই ঘর, নাকি মায়ে স্মৃতি ? সেই ছোট বেলার মধু মাখা মায়ের হাসি আজও আমায় কাদায়। মাগো মা তোমার কি ঐ ঘরেতেই বসত ছিল ? দেখার সৌভাগ হয়নি। তুমি দেখতে কি রকম ছিলে ? একটু শ্যমবন, নাকি খুব বেশি কালো ? ও পৃথিবী বলে দাও আমার মায়ের গায়ের রং। মা মানে কি ? এই নামে কি স্বাদ লুকিয়ে আছে, বলে কি দিবে? যাদের মা আছে শুনি তোমাদের নিকট, জানি ফুরাবেনা কখনো এর স্বাদ, তবু শান্তনা খুঁজি। মর্জিনা আবেগে বলছে, মেঘে মেঘে বেলা প্রকৃতি ছুয়েছে নীল সবুজের মেলা, ফুলে ফুলে সেজেছে বাগিচা সব ফুলের সভাস এক নয় বলে পৃথিবী মেলেছে ভিন্ন রুপে, ভিন্ন ভিন্ন বেলায় সকাল দুপুর সন্ধ্যে সাজে, স্বাদ মিটে না প্রকতি দেখে, মাগো মা তুমি কি প্রকৃতির একটি অংশ? আমার মন তাই বলে, দুজনার মিল খুঁজে পাই। ভাবছি আমি জীবনের কোন দিকে পা বাড়াবো। একা একা পথ চলা কোন পথে চলি ? দিন যায় রাত আসে সময় যে ফুড়ায় না। জীবনরে তুই কেন এত বড়, ছোট নিশ্বাসে? আমি মর্জিনা কি করে কেমনে সাজাই জীবনের তরী, কোন ভেলায় করে ? মাগো তুই বলে কি দিবি, কোন পথে চলি ?আমি মর্জিনা মরা গাছে ফূল ফুটাবো ভালোবাসার আবির ভাবে,এটা আমার আকুতি পৃথিবীর প্রকৃতির কাছে। চলতে চলতে কোন এক সময়ে ক্লান্ত পথে সঙ্গী হউ মাগো,এই বিশ্বাসে বাইবো জীবনের তরী। হঠাৎ ! একদিন মর্জিনা জীবনে ভালোবাসার ছায়া দেখা দেয়,এক মা মর্জিনাকে বলছে,কী চাও তুমি?ও আমার প্রানের মর্জিনা , ঐ লাল সূযের হাতছানিতে জেগে উঠো মাটির বুকে সবুজ দূবা ঘাসে।মুরজিনা বুকে ব্যথা জুড়াবে ও যে আহত ব্যথিত্য হৃদয় জুড়ে কতনা আহাজারি নিসো এই জীবন বয়ে বেড়ায়,মাঝে মাঝে আকাশের সাথে কথা বলে,একা একা কিরে তুইও কি ঢেকে নিতে পারতিনা আমার সম্নান ।মাটিরে মাটি তুই সইলি কি করে ?তুই যে আমার মা।জন্ম মায়ের চেয়ে কম কী ছিলি? মা মাটির দেশ আমার সোনার বাংলাদেশ বলছিস সবে জয় বাংলা কাদের কারনে জানিস কি ? শত কোটি মা বোনের সম্নানে।গ্লানি মুছে দিবে কে মনে কী পড়ে? ওদের আহাজারি শব্দের ধ্বনি,কেপে উঠতো পুরোটা পৃথিবী লজ্জায় মুখ লুকাতো আকাশ মেঘের কোলে।কত না নদী নালা খাল বিল লাশের গন্ধে শত শকুনের ছড়া ছরি চিল উড়ে আকাশ জুড়ে ,মা বোন শিশুদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠতো প্রকৃতি । একদিন মনের কষ্টে মর্জিনা  বলে, তুমি কি আমার বাবা হবে?কেন গো মা? মর্জিনা বলে : বাবা নেই বলে,আমায় একটু আদর করে দিবে? বৃদ্ধা মায়া মায়া চোখে মাথায় হাত বলিয়ে দেয়, কিছুক্ষনের জন্য শান্তনা খুজে পাই, বৃদ্ধা বলছে : আসি মা,মর্জিনার মনের ভাবনাটা এমন ছিল বড় কিছু হারিয়ে ফেলেছে। বৃদ্ধা ভাবে নিজেকে নিয়ে,শেষ বেলায় কি হবে ও কি তবে আমার মেয়ে হবে।ওর আমার জীবনে শেষ সময় গুলো ভালোই কাটবে। বৃদ্ধা ভাবে দিন থেমে থাকে না চলে স্রোতের মতো সময় ফুড়িয়ে যায় জীবন থেকে। মর্জিনার কাছে বলছে; তোর জীবনের সাথে আমায় বেধে নে।শেষ বয়সটা তোর সাথে কাটিয়ে দিবো।মর্জিনা বলে বেশতো আমি ওএমনি চেয়েছিলাম,কি ভাবে সংসার চলে নৌকা পাড়া পারে করে?তোর বাড়ি কোথায় কেনো ঐতো কুড়ে ঘর মাটি দিয়ে গড়া।রাজ প্রসাদের অহংকারে নয়।কেন রে মর্জিনা !বাবা তুমি পৃথিবীর নিষ্ঠুরতা দেখো নি।বৃদ্ধা বলে এই বয়সে কিবা চাইবার আছে জীবনের কাছে? অভিমানে মর্জিনা বলছে – মা তুমি কোথায় শুনতে কি পাও আমার ডাক? প্রকৃতিকে জিজ্ঞাস করে ছিলাম,আমার মা কোথায় বলতে কি পারিস? প্রকৃতি হেলে দুলে বলে না গো না,মা গো মা জগত জুড়ে হয় না তোমার তুলনা,কেন ডেকে নাও নি আচঁল পেতে,মাগো মা হাসতে কি মুচকি করে? তুমি কি শুধুই মা নাকি ভোরের সকাল ছিলে,দুপুর হওয়ার আগে চলে গেলে বিকেল হতে একটু ছিল বাকি? না হয় করতে একটু দেরি।তবে তোকে দেখতে পেতাম।মা মানে বেদনার হাতছানি শান্তনা মিলে বলে, মর্জিনা অবশেষে বলছে,বাবাগো শুনো, তুমি আমার কল্পনা নয়।সত্যিই তুমি আমার বাবা, তোমার মাঝে সান্তনা খুঁজি। মাকে হারিয়েছি যুদ্ধে তাই এই গল্পের সৃষ্টি………… চলবে…………..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Storybd.com © 2017
Powered By AhnafBD